সব খবর সবার আগে।

মহিলাকেন্দ্রিক গালাগালি মোদীকে, সমর্থকের ঘৃণ্য মন্তব্যকে সাধুবাদ জানালেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র

তিনি এমনিতে বেশ ঠোঁটকাটা। নানান সময় নানান মন্তব্য করে খবরের শিরোনামে উঠে আসেন তিনি। এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে ট্রোলডও হন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। কিন্তু এবার যা হল, তা একজন মহিলা হিসেবে তিনি কীভাবে সমর্থন করলেন, তা নিয়েই উঠেছে প্রশ্ন।

কিছুদিন পরই রাজ্যের চার কেন্দ্রে রয়েছে উপনির্বাচন। এর চার কেন্দ্রের মধ্যে একটি কেন্দ্র হল শান্তিপুর। সেখানেই নির্বাচনী প্রচারে গিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী মহুয়া মৈত্র। তিনি নিজের টুইটারে লেখেন যে তিনি যখন টোটোতে চেপে প্রচার সারছেন, সেই সমক্য এক বয়স্ক মানুষ স্নান করার মাঝেই দৌড়ে আসেন তাঁর সঙ্গে দেখা করতে এবং বলেন, “এলপিজি হাজার টাকা, এই (সেই মহিলাকেন্দ্রিক গালাগালি ব্যবহার করে) মোদীকে হাটাও”।

সেই অপভাষাটি আসলে কী, তা মহুয়া মৈত্র পরিষ্কার করে না লিখলেও, তাঁর লেখার ভঙ্গিতে ভালোভাবেই বোঝা যায় যে আসল শব্দটি কী। সেটি যে একটি মহিলাকেন্দ্রিক গালাগালি, তা বেশ স্পষ্ট।

মহুয়া মৈত্রের মতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্দেশ্যে বলা এই মহিলাকেন্দ্রিক গালাগালিটি ‘অমূল্য’। তিনি এও মনে করেন বিজেপি আর বেশিদিন কেন্দ্রীয় শাসকদল হিসেবে থাকবে না। এমন অপভাষাকে সমর্থন করায় নেট দুনিয়ায় মহুয়া মৈত্রকে বেশ কটাক্ষ করা হয়েছে। নেটিজেনদের একাংশের মতে, এই একই অপভাষার ব্যবহার যদি কোনও বিজেপি নেতা করতেন, তাহলে রাজ্যের শাসকদল এতক্ষণে তুলকালাম করে দিত।

তবে, এটাই প্রথমবার নয় যখন মহুয়া মৈত্র এমন কোনও কাজ করলেন। এর আগেও তিনি রিপাবলিক টিভিতে এক তর্ক-বিতর্কের সময় চ্যানেলের এডিটর অর্ণব গোস্বামীকে নিজের মধ্যমা দেখিয়ে খারাপ ইঙ্গিত করেন। এমনকি একবার টুইটারে তিনি ব্রাহ্মণদের ‘চোটিওয়ালা রাক্ষস’ বলেও অপমান করেছিলেন।

You might also like
Comments
Loading...