রাজ্য

মিমি-নুসরতের উপর আরও বড় বিপদ, শো-কজেই থেমে নেই, সাসপেন্ডও হতে পারেন দুই তারকা-সাংসদ, জোর জল্পনা

দলের নির্দেশ সত্ত্বেও তৃণমূল সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠকে উপস্থিত হন নি যাদবপুরের সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ও বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান। এর জন্য আগেই তাদের শো-কজ করা হয়েছিল। তবে এবার নাকি তাদের সাসপেন্ডও করা হতে পারে, এমনটাই জল্পনা ঘনাচ্ছে।

দলীয় সূত্রের খবর, এবার থেকে এই দুই সাংসদকে রেজিস্টার্ডে নিজেদের উপস্থিতি রেকর্ড করে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বলে রাখা ভালো, গত মঙ্গলবার দিল্লিতে গিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তৃণমূল সাংসদদের নিয়ে একটি বৈঠকের ডাক দেন তিনি।

সংসদের শীতকালীন অধিবেশনের বাকি দিনে দলের গতিপ্রকৃতি কী হবে, তা নিয়ে আলোচনার জন্য এই বৈঠক ডাকা হয়। কিন্তু এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না মিমি-নুসরত। এই কারণে তাদের শো-কজ করা হয়।

তৃণমূল সূত্রে খবর, পরবর্তীকালে যাতে এই দুই তারকা-সাংসদ এমন না করে, সে বিষয়ে তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। শুধু মিমি-নুসরতই নন, দলের সমস্ত সাংসদদেরই এমন নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে খবর।

আপাতত মিমি-নুসরতকে শো-কজ করা হলেও, তাদের পরবর্তীতে সাসপেন্ড করা হতে পারে বলেও জল্পনা তৈরি হয়েছে। রাজনৈতিক মহলের মতে, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের এমন সিদ্ধান্ত বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। দলের সমস্ত সাংসদদের জন্যই যে নিয়ম একই, তারকা বলে যে আলাদা কোনও সুযোগ তারা পাবেন না, তা বোঝাতেই এই বার্তা দেওয়া হয়েছে বলে মনে করা হয়েছে।

গত সোমবার সংসদে শুরু হয়েছে শীতকালীন অধিবেশন। প্রথম দিন থেকেই সংসদে উপস্থিত ছিলেন নুসরত জাহান। কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে ফের সুর চড়িয়েছেন তিনি। লাভজনক রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাগুলি কেন বেসরকারিকরণ করা হচ্ছে, এই নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তৃণমূল সাংসদ।

Related Articles

Back to top button