সব খবর সবার আগে।

‘যশরত’ জুটিতে একজন বিজেপি, অন্যজন তৃণমূল! আমি আর নুসরত বিবাহিত নই, বক্তব্য যশে’র

একদিন আগেই বিজেপিতে গেছেন টলিউডের অন্যতম অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত। ভোটের মুখে টলি তারকাদের রাজনীতিতে যোগদানের হিড়িক পড়ে গেছে। সবাই নাকি জনতার জন্য কাজ করতে চান, আর তাই কইয়ের ঝাঁকের মত রাজনীতিতে যোগদান।

যদিও বঙ্গ রাজনীতিতে টলি তারকাদের নিয়ে আসার ট্রেন্ড শুরু হয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরেই। শতাব্দী, তাপস, চিরঞ্জিত, দেবশ্রী, মিঠুন থেকে হিরণ, দেব, মিমি, নুসরত সেলুলয়েডের চরিত্রদের বাস্তবের মাটিতে টেনে নিয়ে একপ্রকার ভোট কিনেছেন তিনি। প্রিয় তারকাদের দেখতে, খুশি করতে ভোট দিয়েছে জনতাও।

আর এবার বাংলা বিধানসভা নির্বাচনের আগে সেই ট্রেন্ডেই গা ভাসিয়েছে বিজেপি।

যেমন অভিনেত্রী নুসরাত জহান তৃণমূলের হয়ে সাংসদ। ‌‌‌‌‌‌‌‌তাঁর‌ই ‘ঘনিষ্ঠ’ বন্ধু যশ দাশগুপ্ত যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে।

যদিও আবার যশের বিজেপিতে যোগদানের দিনই দিলীপ ঘোষকে আক্রমণ করতে ছাড়েননি নুসরত। তা নিয়েই চলছে জোর আলোচনা।

এবার ‘যশরত’ জুটির সঙ্গে বলি দম্পতি অক্ষয় কুমার-টুইঙ্কেল খান্নার তুলনাও উঠে এসেছে ভোটের বাংলায়।

বিজেপিতে যোগদান নিয়ে সম্প্রতি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের প্রশ্নের মুখোমুখি হয়েছিলেন টলিউডের অন্যতম তারকা অভিনেতা যশ। যদিও এবিষয়ে তাঁর বক্তব্য, ”একই পরিবারের সদস্যরা রাজনীতির ক্ষেত্রে কি ভিন্ন মত পোষণ করেন না?” অর্থাৎ যশের কথায় স্পষ্ট রাজনীতি ও ব্যক্তিগত সম্পর্কের কোনও যোগ নেই। প্রসঙ্গক্রমে যশের কাছে অক্ষয় কুমার-টুইঙ্কেল খান্নার সম্পর্কের প্রসঙ্গও টানা হয়। এক্ষেত্রে যশ বলেন, ”ওহ না, অক্ষয় কুমার-টুইঙ্কেল খান্না বিবাহিত। আমি আর নুসরত তা নই।” প্রসঙ্গত, বর্তমানে অক্ষয় কুমারকে বিজেপি ঘনিষ্ঠ বলেই সকলে জানেন। অন্যদিকে বিজেপিকে আক্রমণ করে পোস্ট করতে দ্বিধা করেন না অক্ষয়পত্নী টুইঙ্কেল খান্না।

বিজেপির প্রতি বরাবরই তীব্র আক্রমণ শানেন নুসরত। সেই তিনিই নিজের বিশেষ বন্ধুর

বিজেপিতে যোগদান নিয়ে এখন‌ও কোনও মন্তব্য করেননি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত ১৭ই ফেব্রুয়ারি পদ্ম শিবিরে নাম লেখান যশ দাশগুপ্ত। কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়ের উপস্থিতিতে বিজেপিতে যোগ দেন তিনি। এদিকে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরও যশ  প্রকাশ্যেই বলেন, ”আমি বিজেপিতে যোগ দিতে পারি। তবে দিদি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কিছু বলব না। আমি আজও দিদিকে বলেছি, এই লড়াইয়ে আমায় আশীর্বাদ করার জন্য।”

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...