রাজ্য

৬ মাসেই হাওয়া বদল, চার কেন্দ্রে খড়কুটোর মতো উড়ে গেল বিজেপি, মানুষ গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে পারেনি, দাবী দিলীপের

আজ ছিল রাজ্যের চার কেন্দ্র অর্থাৎ দিনাহাটা, গোসাবা, শান্তিপুর ও খড়দহ কেন্দ্রে উপনির্বাচনের ফল ঘোষণা। এই চার কেন্দ্রেই জামানত জব্দ হয়েছে বিজেপি। চার কেন্দ্রেই বিজেপিকে পিছনে ফেলে জিত হাসিল করে নিয়েছে তৃণমূল।

একুশের নির্বাচনে বিজেপির নিশীথ প্রামাণিকের কাছে মাত্র ৫৭ ভোটে হেরেছিলেন তৃণমূল প্রার্থী উদয়ন গুহ। তবে এবার উপনির্বাচনে তিনি রেকর্ড গড়লেন। উপনির্বাচনে তিনি পেলেন ১ লক্ষ ৮৯ হাজার ৫৭৫ ভোট। অন্যদিকে বিজেপির অশোক মণ্ডল, যাঁর কাছে একসময় হারতে হয়েছিল উদয়নকে, তিনি পেয়েছেন মাত্র ২৫ হাজার ৪৮৬টি ভোট। সব মিলিয়ে উদয়নের জয়ের মার্জিন ১ লক্ষ ৬৪ হাজার ৮৯ ভোট। মোট ভোটের ৮৬ শতাংশ পেয়েছেন উদয়নই।

খড়দহ কেন্দ্রেও বিপুল ভোটে জিতেছেন তৃণমূলের বর্ষীয়ান নেতা শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। তিনি পেয়েছেন ১ লক্ষ ১৪ হাজার ৮৬টি ভোট। বিজেপি প্রার্থী জয় সাহা পেলেন মাত্র ২০ হাজার ২৫৪ টি ভোট। অন্যদিকে, সিপিএম পেয়েছে ১৬ হাজার ১১০ ভোট। তাঁর জয়ের মার্জিন ৯৩ হাজার ৮৩২ ভোট।

গোসাবা কেন্দ্রেও ধরাশায়ী হয়েছে বিজেপি। তৃণমূল প্রার্থী সুব্রত মণ্ডল পেয়েছেন ১ লক্ষ ৬১ হাজার ৪৭৪ ভোট। সেখানে বিজেপি প্রার্থী পেলেন মাত্র ১৮ হাজার ৪২৩টি ভোট। তৃণমূল প্রার্থীর জয়ের ব্যবধান ১ লক্ষ ৪৩ হাজার ৫১ টি ভোট।

ভোটের আগে শান্তিপুরে উপনির্বাচনের প্রচারে গিয়ে শুভেন্দু অধিকারী বলেছিলেন যে বাংলাদেশের ঘটনার পর তারা তিন গুণ বেশি ভোটে জিতবেন। একুশের ভোটে এই কেন্দ্র থেকে জিতলেও উপনির্বাচনে ভরাডুবি হল বিজেপির। বিজেপি প্রার্থী নীলাঞ্জন বিশ্বাস পেলেন ৪৭ হাজার ৪১২ ভোট। অন্যদিকে তৃণমূল প্রার্থী ব্রজকিশোর ঘোষ পেয়েছেন ১ লক্ষ ১২ হাজার ৮৭টি ভোট। বিজেপি প্রার্থীকে ৬৪ হাজার ৬৭৫ ভোটে পরাজিত করেন তিনি।

নানান কেন্দ্রে এভাবে জামানত জব্দ হওয়ার পর বিজেপি নেতৃত্বের দাবী, তৃণমূল সন্ত্রাসকে হাতিয়ার করে ও ভোটিং মেশিনারিকে কাজে লাগিয়ে ভোটে জিতেছে। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ প্রশ্ন তোলেন যে উপনির্বাচনে দেড় লক্ষ ভোটের ব্যবধান কীভাবে হয়।

বলে রাখি, একুশের নির্বাচনে এই চার কেন্দ্রের মধ্যে শান্তিপুর ও দিনহাটা থেকে জিতেছিল বিজেপি। কিন্তু উপনির্বাচনে সেই দুটি আসনও আর টিকল না। দিলীপ ঘোষের কথায়, দিনহাটা ও গোসাবায় মানুষ নিজেদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতেই পারেননি। তা নাহলে উদয়ন গুহ ও সুব্রত মণ্ডল শোভনদেবের চেয়েও রেকর্ড ভোটে জিতলেন কীভাবে? তারা কী শোভনদেবের চেয়েও জনপ্রিয় নেতা? প্রশ্ন রাখেন দিলীপ।

Related Articles

Back to top button