রাজ্য

ঘটনার পুনরাবৃত্তি! স্বামী-সন্তান রেখে এবার দুই টোটোচালকের সঙ্গে ঘর ছেড়ে পালালেন বাগদার একই পরিবারের দুই গৃহবধূ

মাসকয়েক আগেই শোনা গিয়েছিল যে হাওড়ার নিশ্চিন্দার একই পরিবারের দুই জা বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছিলেন তাদের বাড়িতেই কাজ করতে আসা দুই রাজমিস্ত্রির সঙ্গে। সেই ঘটনা নিয়ে জলঘোলা কম হয়নি। এবার তেমনই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটল উত্তর ২৪ পরগণায়।

জানা যাচ্ছে, দু’জন টোটোচালকের সঙ্গে এবার স্বামী-সন্তানকে রেখে ঘর ছাড়লেন একই পরিবারের দুই গৃহবধূ। ঘটনাটি ঘটেছে বাগদা থানার আন্দুলপোতা ও সিন্দ্রানি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। এই ঘটনায় গোটা এলাকায় একেবারে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। দুই গৃহবধূকে ঘরে ফিরিয়ে আনার আবেদন করেছেন তাদের শ্বশুর।

স্থানীয় সূত্রে খবর অনুযায়ী, ওই দুই টোটোচালকের নাম বিশ্বজিৎ মণ্ডল এবং শিবু মজুমদার। সিন্দ্রানি এলাকায় টোটো চালান তাঁরা। টোটোর পাশাপাশি শিবুর ওই এলাকায় একটি চালের দোকানও রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

শোনা যাচ্ছে, টোটোতে চলাফেরা করার সূত্রেই পাল বাড়ির মেজো বউ মিঠু পাল ও ছোট বউ পবিত্রা পালের সঙ্গে পরিচয় ঘটে বিশ্বজিৎ ও শিবুর। সেই পরিচিতিই ধীরে ধীরে গড়ায় আরও গভীরে। প্রণয়ের সম্পর্কে জড়ায় তারা, এমনটাই দাবী স্থানীয়দের।

বাড়ির দুই বউ ঘরছাড়া। তাদের শ্বশুর গৃহকর্তা শিবপদ পাল জানান যে তাঁর বড় ছেলে তাঁর পরিবার নিয়ে থাকেন বাইরে। আর মেজো ছেলে ও ছোটো ছেলে পুণেতে একটি নির্মাণ সংস্থায় কাজ করেন। তিনি জানান, তাঁর মেজো ছেলের সঙ্গে মিঠুর বিয়ে হয় বছর ২২ আগে। তাদের দুই ছেলে রয়েছে। আর ছোটো ছেলে ও ছোটো বৌমা পবিত্রার একটি পাঁচ বছরের সন্তান রয়েছে।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, গত শনিবার বিকেলে ননদের বাড়ি যাচ্ছেন বলে বাড়ি থেকে বেরোন ওই দুই গৃহবধূ। নিজের ছেলেকে সঙ্গে নিয়েই বেরিয়েছিলেন পবিত্রা। সঙ্গে সোনার গয়না আর কিছু টাকাপয়সাও নিয়ে গিয়েছেন দু’জনে, এমনটাই দাবী পরিবারের। এই ঘটনার পরই স্থানীয় পঞ্চায়েত ও থানার দ্বারস্থ হন শিবপদ। তিনি জানিয়েছেন যে তাঁর বৌমারা যদি ফিরে আসেন, তাহলে তিনি তাদের মেনে নেবেন।

Related Articles

Back to top button