রাজ্য

চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ, তৃণমূল নেতাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে বেধড়ক মার গ্রামবাসীর

রাজ্য সরকার এখন নানান দুর্নীতিতে বিদ্ধ। রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে ইডির হাতে গ্রেফতার হয়েছেন। এছাড়াও, এই নিয়োগ দুর্নীতিতে নাম জড়িয়েছে আরও নানান তৃণমূল নেতার। গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান থেকে শুরু করে নানান তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে চাকরি দেওয়ার বা চাকরির প্রতিশ্রুতি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

ফের এমনই এক অভিযোগ উঠল আরও এক তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। আদিবাসী ছেলেমেয়েদের থেকে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ করে চাকরির প্রতিশ্রুতি দেওয়ার অভিযোগ উঠল পশ্চিম মেদিনীপুরের এক তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। এই অভিযোগে ওই তৃণমূল নেতাকে গাছে বেঁধে বেধড়ক মারধর করলেন গ্রামবাসীরা। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরার সত্যপুর এলাকায়।

জানা গিয়েছে, আজ, শনিবার সকালে ডেবরার তিন নম্বর অঞ্চলের সত্যপুর এলাকার ফাঁকা জায়গায় গাছের সঙ্গে দড়ি বেঁধে রাখা হয় ওই তৃণমূল নেতাকে। তণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের নেতা তথা ডেবরা ব্লকের প্রাক্তন সভাপতি দিলীপ পাত্রের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ উঠেছে। তিনি আদিবাসী ছেলেমেয়েদের চাকরি দেওয়ার নাম করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে ছিলেন বলে অভিযোগ।

স্থানীয় সূত্রে খবর, ওই তৃণমূল নেতার থেকে বারবার টাকা ফেরত দেওয়ার দাবী জানায় চাকরিপ্রার্থীরা। কিন্তু তিনি কোনও কথাই কানে নেন নি বলে অভিযোগ। এই কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে ওই তৃণমূল নেতাকে গাছের সঙ্গে দড়ি দিয়ে বেঁধে বেধড়ক মারধর করেন এলাকাবাসীরা।

উল্লেখ্য, গত মাসেই ভগবানপুর এলাকায় এরকমই এক ঘটনা ঘটে। চাকরি দেওয়ার নাম করে টাকা নিয়ে পালায় এক তৃণমূল কর্মী শিবশঙ্কর নায়েক। ক্ষিপ্ত এলাকাবাসীরা ওই তৃণমূল নেতার ছেলেকে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করেন। ডেবরার এই ঘটনা প্রসঙ্গে তৃণমূলের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

Related Articles

Back to top button