রাজ্য

চলছে রোদ-বৃষ্টির লুকোচুরি, পুজোর সময় কী তবে ভাসবে বাংলা? নিম্নচাপের সম্ভাবনা কী রয়েছে? কী জানাচ্ছে হাওয়া অফিস

কখনও রোদ তো কখনও আবার বৃষ্টি। এমনই এক অদ্ভুত আবহাওয়া বিরাজ করছে বঙ্গে। আগামী সপ্তাহ থেকেই বেজে উঠবে পুজোর বাদ্যি। এমন সময় বঙ্গবাসীর মনে একটাই প্রশ্ন বারবার উঠে আসছে যে পুজোর কয়েকটা দিন বৃষ্টি হবে না তো? এই বিষয়ে কী জানাচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা?

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের সূত্র অনুযায়ী, বঙ্গ থেকে ধীরে ধীরে বিদায় নিচ্ছে বর্ষা। বর্ষা বিদায়ের শেষ মুহূর্ত চলে এসেছে। ফলে পুজোর সময় বৃষ্টির তেমন সম্ভাবনা আপাতত নেই বললেই চলে। তবে এরই মাঝে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হতে পারে।

হাওয়া অফিস সূত্রে জানা যাচ্ছে, আপাতত আগামী কয়েকদিনের মধ্যে বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। এর ফলে দক্ষিণবঙ্গে ভারী কোনও বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হবে না। তবে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে হালকা বৃষ্টি হবে। এদিকে পুজোর পাঁচটা দিন বাংলার আবহাওয়া কেমন থাকে, তা জানতে আরও দিন কয়েক অপেক্ষা করতে হবে বলেই জানা যাচ্ছে।

উত্তরবঙ্গের পাঁচটি জেলা দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ারে আগামী চার থেকে পাঁচদিন বৃষ্টি হবে বলে খবর। এর মধ্যে কালিম্পং, জলপাইগুড়ি ও আলিপুরদুয়ারে বিক্ষিপ্ত ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। গতকাল, বৃহস্পতিবার রাত থেকেই তুমুল ঝড়বৃষ্টি হয়েছে উত্তরবঙ্গের নানান জায়গায়।

আজ, শুক্রবার কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। এদিন বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতা রয়েছে ৯০ শতাংশের কাছাকাছি। গতকাল, বৃহস্পতিবার কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে, উত্তরভারতের দিল্লি ও তৎসংলগ্ন অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। আবহাওয়া দফতরের তরফে হলুদ সতর্কতা জারি করা হয়েছে এই এলাকাগুলিতে। বুধবার থেকে গুরুগ্রাম ও নয়ডাতেও ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। আজও এই শহরগুলিতে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

Related Articles

Back to top button