রাজ্য

গরম থেকে মুক্তি! বিকেলেই কলকাতায় নামছে ঝড়বৃষ্টি, জুনের প্রথম সপ্তাহতেই কী তবে বর্ষার প্রবেশ বাংলায়?

ঝাড়খণ্ডের উপরে একটি ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে বলে খবর। আবার রাজস্থান থেকে উত্তর বাংলাদেশ পর্যন্ত অন্য একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা রয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস বলছে, কলকাতায় আগামী ২ দিন তাপমাত্রা বাড়বে। তবে আগামী ৪৮ ঘণ্টায় বিকেল বা সন্ধ্যের দিকে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে শহরে। ঝড়ের গতিবেগ থাকতে পারে ঘণ্টায় ৪০-৫০ কিলোমিটার।

হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, দক্ষিণবঙ্গে পশ্চিমের জেলাগুলিতে তাপমাত্রা ২ থেকে ৩ ডিগ্রি বাড়বে। গাঙ্গেয় দক্ষিণবঙ্গ সহ দক্ষিণের সব জেলায় আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ থাকবে মোটামুটি ৯০ শতাংশ।এর জেরে যার গলদঘর্ম অবস্ত। ওদিকে উত্তরবঙ্গে এখন হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি চলছে। পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী দুদিনও বৃষ্টি চলবে।

জানা যাচ্ছে, আগামী বৃহস্পতিবার থেকে উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে। কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা। উত্তর-পূর্ব ভারতে ধীরে ধীরে প্রবেশ করছে মৌসুমি বায়ু। এর জেরেই এই বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা।

গত রবিবারই ভারতের মূল ভূখণ্ডে, কেরলে প্রবেশ করেছে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু। পূর্বাভাস অনুযায়ী, ২ বা ৩রা জুনের মধ্যেই উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলি অর্থাৎ অসম, মেঘালয়, নাগাল্যান্ড ও মণিপুরে বর্ষা প্রবেশ করতে পারে। সেখানে বর্ষার অগ্রগতির অনুকূল পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলে জানা জাচ্চজে।

হাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী তিন দিনের মধ্যে মৌসুমী বায়ু প্রবেশ করবে তামিলনাড়ু,কর্নাটক ও উত্তর-পূর্ব ভারতের জেলাগুলিতে। আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যে মৌসুমী বায়ু ঢুকবে উত্তর-পূর্ব ভারতে। এর প্রভাবে উত্তরবঙ্গে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে আর আগামী দু’দিন চলবে বৃষ্টি।  

হাওয়া অফিসের বুলেটিন অনুযায়ী, আজ, মঙ্গলবার কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের দিনের আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে বলে জানা যাচ্ছে। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে যথাক্রমে ৩৬ ডিগ্রি ও ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি।

Related Articles

Back to top button