সব খবর সবার আগে।

বিরল ক্যানসারে বাদ পড়ল অণ্ডকোষ, ভবিষ্যতে সন্তান লাভের আশায় বীর্য সংরক্ষণ করে রাখল যুবক

জমিয়ে রাখা বীর্য কাজে আসবে ভবিষ্যতে। অবাক হচ্ছেন? তবে এমন ঘটনাই ঘটেছে এই রাজ্যে। বিরল ক্যানসারে আক্রান্ত যুবকের বাদ যায় অণ্ডকোষ। কিন্তু সন্তান লাভের আশায় সেই যুবক সংরক্ষণ করে রাখল নিজের বীর্য।

সদ্যই বিয়ে করেছেন নৈহাটির বছর বত্রিশের যুবক সুজন নস্কর। হঠাৎই একদিন অন্তর্বাস বদলাতে গিয়ে দেখেন যে বাঁ দিকের অণ্ডকোষ একটু বড় লাগছে। প্রথমে গুরুত্ব না দিলেও দিন যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে যেন তা ক্রমশ অবশ হয়ে যেতে থাকে। নতুন বউ তাই লজ্জায় তাঁকে কিছু বলতে না পেরে চলে আসেন অ্যাপোলো হাসপাতালের অঙ্কোলজির বহির্বিভাগে।

আরও পড়ুন- নজির গড়ল কলকাতা, রোবটের মাধ্যমে প্রথম কিডনি প্রতিস্থাপন শহরের হাসপাতালে

সেখানকার শল্যচিকিৎসক ডঃ শুভদীপ চক্রবর্তী সুজনকে পরীক্ষা করে বলেন যে এটি টেস্টিকুলার নিওপ্লাজম। এক বিরল অণ্ডকোষের ক্যানসার। দ্রুতই অস্ত্রোপচার করতে হবে, নাহলে বড় বিপদ। তা শুনেই রীতিমতো আঁতকে ওঠেন সুজন।

সদ্যই তাঁর বিয়ে হয়েছে। সন্তানে বড় শখ। কিন্তু অস্ত্রোপচার করলে স্পার্ম কাউন্ট কমে যাওয়ার সম্ভাবনা নব্বই শতাংশ। তা যদি না-ও হয়, তাহলেও রেডিওথেরাপির কারণে স্পার্মে সমস্যা হতে পারে। এর জেরে সন্তানের জেনেটিক ডিসঅর্ডার দেখা দেওয়ার সম্ভাবনাও প্রবল। কিন্তু এদিকে স্বাভাবিক বাচ্চা চান সুজন।

কিন্তু বেশিদিন অস্ত্রোপচার ফেলেও রাখা যাবে না। এই সময় ডঃ শুভদীপ চক্রবর্তী জানান, “উপায় ছিল একটাই। অ্যাপোলো ফার্টিলিটি ক্লিনিকের বীর্য ব্যাঙ্কে স্পার্ম রেখে অস্ত্রোপচার করা। তাহলে ক্যানসারকেও বধ করা যাবে। আবার পাওয়া যাবে নিজের ঔরসজাত সন্তান”।

এই প্রস্তাবে রাজি হন সুজন। সেইমতো অ্যাপোলো ফার্টিলিটি ক্লিনিকে তাঁর স্পার্মের নমুনা ধরে রাখা হয়েছে। ফার্টিলিটি ক্লিনিকের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. অরিন্দম রথ জানান, “অনেক সময় একটা স্যাম্পেল কাজ নাও করতে পারে। সুজনবাবুর স্পার্মের তিনটি নমুনা আমরা রেখে দিয়েছি। লিকুইড নাইট্রোজেন দিয়ে অত্যন্ত ঠান্ডায় সেগুলো সংরক্ষণ করা আছে। উনি অস্ত্রোপচার করেছেন। ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে নিন। তারপর ওই স্পার্ম ওঁর স্ত্রীর ওভারিতে ইঞ্জেক্ট করা হবে”।

জানা গিয়েছে, ক্রায়ো পদ্ধতিতে সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছে সুজনের স্পার্ম। তা ৫ বছর পর্যন্ত তাজা থাকবে। ক্যানসারের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে সুজনের এবং তা সফলও হয়েছে। দেড় ঘণ্টা চলেছে এই অস্ত্রোপচার।

You might also like
Comments
Loading...