অফবিট

ঝাঁকে ঝাঁকে আকাশ থেকে পড়ে গিয়ে মৃত্যু হলো বিপন্ন প্রজাতির কাকাতুয়া পাখির।

হঠাৎই আকাশ থেকে পড়তে শুরু করে একের পর এক পাখি। তার আবার সেই পাখি বিরল প্রজাতির কাকাতুয়া। মুখ দিয়ে নিরন্তর রক্তক্ষরণের পর শেষে মারাই যায় পাখিগুলো। ভয়াবহ এই ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ায়৷

 

গত সপ্তাহে হঠাৎই দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেডের একটি স্কুল চত্বরে এসে একের পর এক মুখ থুবরে পরতে থাকে বিপন্ন প্রজাতির কাকাতুয়াগুলো। হালকা গোলাপী রঙের এই কাকাতুয়া গুলোর নাম লং বিলড্ কোরেল্লা। অস্ট্রেলিয়াতে এটি সংরসংরক্ষিত প্রজাতির পাখি। একে একে প্রায় ৬০ টি পাখি এসে পড়ে সেই স্কুল চত্বরে। এই দৃশ্যে স্বাভাবিকভাবেই আতঙ্ক সৃষ্টি হয় স্থানীয়দের মধ্যে৷ খবর পেয়ে তড়িঘড়ি সেই স্থানে পৌঁছায় পক্ষী বিশেষজ্ঞের দল। কিন্তু সেসময় ইতিমধ্যেই সিংহভাগ পাখি মারা গিয়েছে। যে কয়েকটি পাখি যন্ত্রণায় ছটফট করছিল তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হলেও তাদেরও আর বাঁচানো সম্ভব হয়নি। ৬০ টি পাখির মধ্যে বাঁচানো সম্ভব হয়েছিল মাত্র ২ টি পাখিকে, মৃত্যু হয়েছিল মোট ৫৪ টি বিরল প্রজাতির কাকাতুয়ার।

কিন্তু কি করে ঘটলো এই ঘটনা? তা নিয়েই এখন তোলপার অস্ট্রেলিয়া। বিশেষজ্ঞদের মতে, কীটনাশক বা বিষ জাতীয় কিছু খাইয়ে এই পাখিগুলোকে হত্যা করা হয়েছে। কারণ, এই পাখিগুলো অস্ট্রেলিয়ার কৃষিজমিতে ফসলের ক্ষতি করে। ইতিমধ্যেই এই নিয়ে তদন্তের জন্য কমিটি গঠন হয়েছে অস্ট্রেলিয়াতে৷ কোনো জলাশয় থেকে এই বিষক্রিয়া হয়েছে কীনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে সূত্রের খবর।

Related Articles

Back to top button