সব খবর সবার আগে।

২১শে জুন উত্তরায়ণের দিন পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ, কোথায় দেখা যাবে , কি প্রভাব পড়বে জেনে নিন সবিস্তার

আগামী ২১শে জুন এক বিরল মহাজাগতিক পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণের সাক্ষী হতে চলেছে বিশ্ববাসী৷ মায়া সভ্যতার ক্যালেন্ডার মতে, এই দিনটিকে ডুমস ডে বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। সেখানে উল্লিখিত আছে যে জুন ২০২০ তে পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাবে৷ মায়ান ক্যালেন্ডার অনুসারে, খ্রিস্টপূর্ব ৩১১৪ সালে পৃথিবীর সৃষ্টি হয়েছিল ৷ সেখানে বলা হয়েছে পৃথিবীর আয়ু ৫১২৬ বছর৷ যদিও এই বক্তব্যের কোনও বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা নেই৷

২১ শে জুনের সূর্যগ্রহণটি ২০২০ সালের প্রথম সূর্যগ্রহণ৷ তারপরের গ্রহণটি হবে ১৪ ডিসেম্বর৷ সাধারণত চন্দ্রগ্রহণের আগে বা পরে সূর্যগ্রহণ হয়। কিন্তু এই গ্রহনটি ১৯৯৫ সালের ঘটনার পুনরাবৃত্তি করবে।

এই সূর্যগ্রহনের পিছনে তাৎপর্য?

২১ শে জুন পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণের দিন রিং অফ ফায়ার বা আগুনের বলয় দেখা যাবে কয়েকটি জায়গা থেকে৷ এদিন চাঁদের ছায়া সূর্যকে প্রায় পুরোটাই ঢেকে দেবে৷ সূর্যের মাঝখানের অংশ ঢেকে গিয়ে অনেকটা আংটির মতো বলয়াকৃতির চেহারা নেবে৷ চাঁদ সূর্যের প্রায় ৯৯.৪%ই ঢেকে দেবে। ২১ জুন উত্তর গোলার্ধে সবচেয়ে বড় দিন৷ আর এবছর উত্তরায়ণের দিনই সূর্যগ্রহণ হচ্ছে৷ ১৯৩৮ সালের পর ২০২০-তে ফের উত্তরায়ণে সূর্যগ্রহণের এই বিরল দৃশ্যের সাক্ষী থাকবে বিশ্ববাসী৷

ভারতে আংশিক গ্রহণ দেখা যাবে সকাল ৯.১৫ মিনিট ৫৮ সেকেন্ডে৷ এরপর প্রথম পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ শুরু হবে সকাল ১০.১৭ মিনিট ৪৫ সেকেন্ডে৷ সূর্যকে চাঁদের পুরোপুরি সূর্যকে গ্রাস করবে দুপুর ১২.১০ মিনিট ৪ সেকেন্ডে৷ সূর্যগ্রহণ চলবে দুপুর ২.০২ মিনিট ১৭ সেকেন্ড পর্যন্ত৷ আংশিক গ্রহণ শেষ হবে দুপুর ৩.০৪ মিনিটে ৷

কোথায় কোথায় এই গ্রহণ দেখা যাবে?

কলকাতায় আংশিক গ্রহণ শুরু হবে সকাল ১০টা ৪৬ মিনিট থেকে ৷ এরপর সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছবে ১২টা ৩৫ মিনিটে৷ এরপর দুপুর ২টো ১৭ মিনিট পর্যন্ত গ্রহণ। কলকাতা থেকে সূর্যের ৭২ শতাংশই গ্রাস দেখতে পাওয়া যাবে।

সূর্যগ্রহণে শরীরের উপর কি প্রভাব ফেলবে?

বিজ্ঞানী এবং চিকিৎসকদের মতে গ্রহণের সময় হাই এনার্জি, ভাইব্রেশন তৈরি হয়। সূর্যগ্রহণের সময় অনেকেই খাবার খান না৷ কিন্তু বিজ্ঞানী ও যুক্তিবাদীরা এই রীতির বিরোধিতা করে এসেছেন ৷ গ্রহণের সময় সহজপাচ্য খাবার ও ফলের রস খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন ডায়েটিশিয়ানদের একাংশ৷

২১ জুন, ২০২০ কেন ডুমস ডে?

মায়া সভ্যতার ক্যালেন্ডার অনুসারে, জুন ২০২০ তেই নাকি পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাবে৷ মায়ান ক্যালেন্ডারে খ্রিস্টপূর্ব ৩১১৪ সালে পৃথিবীর সৃষ্টি হয়েছে৷ আবার জুলিয়ান ক্যালেন্ডার অনুযায়ী, সেই দিনটা ৬ সেপ্টেম্বর, ৩১১৪ সাল৷ মায়া সভ্যতায় উল্লিখিত আছে, পৃথিবীর আয়ু ৫১২৬ বছর৷ সেই অনুযায়ী ২১ ডিসেম্বর, ২০১২ সালে পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাওয়ার কথা ছিল৷ কিন্তু তা হলো না। অন্যদিকে জুলিয়ান ক্যালেন্ডার অনুযায়ী সেটাই ২১ জুন, ২০২০৷ তাই এই দিনটি ডুমস ডে নামে চিহ্নিত।

You might also like
Leave a Comment