সব খবর সবার আগে।

রাশি অনুযায়ী দেখে নিন চন্দ্রগ্রহণের সম্ভাব্য প্রভাব!

চন্দ্রগ্রহণের প্রভাব বিভিন্ন রাশির জাতক-জাতিকার উপর এক এক রকমের হয়। এই বছর জানুয়ারি মাসে হওয়া চন্দ্রগ্রহণটি যদি আপনি না দেখে থাকেন, তাহলে শুক্রবার আপনার সামনে আসছে দ্বিতীয় সুযোগ। এটি হবে ২০২০ সালের দ্বিতীয় চন্দ্রগ্রহণ। ভারত থেকে এই গ্রহণ দেখা যাবে। এবারের গ্রহণ উপচ্ছায়া চন্দ্রগ্রহণ। গ্রহণ হবে ৩ ঘণ্টা ১৮ মিনিটের। ভারতীয় সময় শুক্রবার রাত ১১টা ১৫ থেকে শুরু হবে গ্রহণ। চলবে রাত ১২.৫৪ পর্যন্ত। এই গ্রহণের প্রভাব কতটা কার্যকরী মানবজীবনে? জ্যোতিষবিদদের গণনা অনুযায়ী আপনার ভাগ্যে চন্দ্রগ্রহণের কী কী কী সম্ভাব্য প্রভাব পড়তে পারে তা দেখে নিন-

মেষ- মেষ রাশির জাতক-জাতিকাদের জন্য সময়টা কিছুটা কঠিন ৷ ঝামেলা এড়িয়ে চলুন ৷ তাহলেই রক্ষে ৷

বৃষ- ব্যবসার ক্ষেত্রে কিছুটা সমস্যা দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে ৷ অযথা কারোর সঙ্গে ঝামেলায় জড়াবেন না ৷

মিথুন- এই সময়টা সতর্ক থাকা প্রয়োজন ৷ শরীর-স্বাস্থ্যের দিকে নজর দিন ৷ কারোর সঙ্গে অযথা বাকবিতণ্ডায় জড়াতে যাবেন না ৷ বিপদ ঘটে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল ৷ তাই সতর্ক থাকুন ৷

কর্কট- কর্কট রাশির জাতক-জাতিকাদের জন্যও সময়টা খুব একটা ভাল নয় ৷ সন্তান ও নিজের স্বাস্থ্যের দিকে খেয়াল রাখুন ৷

সিংহ- পরিবারের দিকে বিশেষ নজর দেওয়া প্রয়োজন ৷ পাশাপাশি নিজের শরীর-স্বাস্থ্যের দিকে খেয়াল রাখার প্রয়োজন রয়েছে ৷ খারাপ সময় আসলেও তা কাটিয়ে উঠতে পারবেন ৷

কন্যা- ব্যবসার কাজে সব ভেবেচিন্তেই পদক্ষেপ নিন ৷ নাহলে বিপদ ঘটতে পারে ৷ কর্মক্ষেত্রে সমস্যা দেখা দিতে পারে ৷

তুলা- কর্মক্ষেত্রে এখন সময়টা খুব একটা ভাল নয় আপনার ৷ তবে ধৈর্য্য ধরুন ৷ ভাল সময় আসবেই ৷ খুব বেশি উত্তপ্ত বাক্য-বিনিময়ে জড়াবেন না ৷ নিজের স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখুন ৷

বৃশ্চিক- মনকে শান্ত রাখুন ৷ খারাপ কিছু ঘটলেও মেজাজ হারাবেন না ৷ পূজার্চনায় মন দিন ৷ মানসিক চাপ বাড়লে কোনও কাজই ঠিকঠাক হবে না ৷

ধনু- খারাপ চিন্তা ঝেড়ে ফেলে শুধুমাত্র পজিটিভ চিন্তাভাবনা করুন ৷ কোনও বড় সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে ভাবনাচিন্তা করুন ৷

মকর- ঝগড়াঝাটিতে জড়াবেন না ৷ প্রিয়জনের স্বাস্থ্যের দিকে নজর দিন ৷ ব্যবসায় আরও ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা ৷

কুম্ভ- আপাতত খুব বেশি চিন্তা করার কিছু নেই ৷ কিন্তু আপনার শত্রু কিন্তু প্রচুর ৷ স্বাস্থ্যের দিকে বিশেষ নজর দেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে ৷

মীন- রাস্তায় বেরলে সাবধানে ৷ কারণ দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে ৷ সন্তানের স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তা থাকবে ৷

Leave a Comment