ফুটবল

ফের নয়া হুমকি মিনার্ভা কর্তার। ইস্ট-মোহনকে নিয়ে অসন্তুষ্ট।

খবর 24×7 নিউজ ডেস্ক: ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৮

আইএসএল-কে এক নম্বর করার চেষ্টায় রয়েছে ফেডারেশন। আর তাই আই লিগের সঙ্গে হচ্ছে দুয়োরাণী-র মতো ব্যবহার। এই অভিযোগ এনেই ফের বিস্ফোরক মিনার্ভা কর্তা রঞ্জিত বাজাজ। কিছুদিন আগেই জানা গিয়েছে যে, ফেডারেশনের নির্দেশে স্টার স্পোর্টস আই লিগের বাকী সমস্ত খেলার মধ্যে মাত্র কিছু ম্যাচই সরাসরি সম্প্রচার করবে। আর তার জেরেই আই লিগের ক্লাবগুলোর রোষের মুখে এবারে ফেডারেশন এবং সম্প্রচার সংস্থা।

ফেডারেশনের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে এবারে আই লিগে অংশগ্রহনকারী ৬ টি দল, যথাক্রমে চেন্নাই সিটি, মিনার্ভা পাঞ্জাব, গোকুলাম, লাজং,আইজল এবং নেরোকা জোটবদ্ধ হয়েছে। তাদের মধ্যে কাল কলকাতার একটি হোটেলে মিনার্ভা, গোকুলাম এবং চেন্নাই সিটি-র কর্তারা প্রচারমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তাদের দাবি পেশ করেন। সঙ্গে এও জানান যে আগামী ৫ তারিখের মধ্যে ফেডারেশন কোনো জবাব না দিলে এই দলগুলো দ্বারস্থ হবে ফিফা-র এবং প্রয়োজনে তারা অভিযোগ জানাবে কোর্ট অফ আরবিট্রেশন ফর স্পোর্টসেও। তবে এদিন লাজং, নোরোকা এবং আইজলের কর্তাদের দেখা মেলেনি। যদিও মিনার্ভা কর্তার দাবি যে, এই তিনটি দল তাদের মৌখিক সমর্থনের কথা জানিয়েছে।

এই ৬ টি দল বাদে অন্যন্য দলগুলো যেমন ইস্ট-মোহন এই জোটে সামিল হয়নি। এর কারণ হিসেবে মিনার্ভা কর্তা ইস্ট-মোহন-কে খোঁচা দিয়ে জানান যে, ইস্ট-মোহন-কে ফেডারেশন থেকে আইএসএল-এ খেলার টোপ দেওয়া হয়েছে। তাই এই দুই ক্লাব তাদের জোটের অংশ হয়নি। রঞ্জিত বাজাজ কলকাতার এই দুই প্রধানকে কটাক্ষ করে আরও জানান যে, ফেডারেশনের এই আইএসএল খেলার টোপ কেবলমাত্র একটি টোপ হিসেবেই থেকে যেতে পারে। কাজেই ফেডারেশন বলেছে বলেই যে আগামী মরশুমে এই দুই প্রধান আইএসএল-এ খেলার সুযোগ পাবে, তা নাও হতে পারে। তাছাড়াও স্টার পোর্টসের সূচী অনুযায়ী ইস্ট-মোহনের প্রায় সব খেলাই সরাসরি সম্প্রচার করতে চলেছে স্টার। বঞ্চিত হয়েছে মিনার্ভা, চেন্নাই-এর মতো দলগুলি। যার দরুন-ই বলা যায় যে, ইস্ট-মোহন এই জোটে অংশগ্রহন থেকে বিরত থেকেছে।

এছাড়াও এই জোটে পূর্বে রিয়েল কাশ্মীর মৌখিক সম্মতি জানালেও। হঠাৎ-ই কাল থেকে নিশ্চুপ হয়ে জান তারা। তারা এই জোটকে আদৌ সমর্থন জানাচ্ছে কীনা তারও কোনো সদুত্তর মেলেনি। অপরদিকে ইন্ডিয়ান অ্যারোজ ফেডারেশনেরই নিজস্ব দল হওয়ায় তাদেরও এই জোটে অংশগ্রহনের কোনো সম্ভবনা নেই। মিনার্ভা কর্তার দাবি যে, এটি আইএসএল-কে এক নম্বর লিগ করার একটি চক্রান্ত মাত্র।  আই লিগের জনপ্রিয়তা কমাতেই ফেডারেশনের এহেন পদক্ষেপ। তাই ইস্ট-মোহন বাদে বাকী দলগুলোর মাত্র একটি অথবা দুটি ম্যাচ সরাসরি সম্প্রচার করা হবে স্টারের পক্ষ থেকে। এর দরুন এই ছোটো ক্লাবগুলোর স্পনসর মেলা দুষ্কর হবে বলেও মিনার্ভা কর্তার আশঙ্কা। আর স্পনসর না মিললে এই ক্লাবগুলো তাদের অস্তিত্বই আর বজায় রাখতে পারবে না বলেই তাদের এই জোটবদ্ধ আন্দোলনের পথে নামতে হয়েছে বলে দাবি রঞ্জিত বাজাজের।

Related Articles

Back to top button