সব খবর সবার আগে।

এবার করোনা ভাইরাসের থাবা ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগেও

ইতালি, স্পেন, ফ্রান্সের পর এবার করোনার ছোবল পড়েছে ইংল্যান্ডের ফুটবলেও। লন্ডনে গতকাল স্বাস্থ্যপরীক্ষার পর নিশ্চিত হয়েছে, করোনাভাইরাস সংক্রমিত হয়েছে আর্সেনালের কোচ মিকেল আরতেতা ও চেলসির উইঙ্গার ক্যালাম হাডসন-ওডোয়ের মধ্যে। অবস্থা বেগতিক দেখে আজ সভা ডেকেছে প্রিমিয়ার লিগ কতৃপক্ষ। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, লিগ মরসুম স্থগিত করার ঘোষণা আসতে পারে এই সভা থেকে।

আরতেতার সংক্রমণের খবর নিশ্চিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আর্সেনালের ১০০ জন খেলোয়াড়-কর্মকর্তাকে গৃহবন্দী রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে লন্ডনের ক্লাবটি। ১৪ দিন ‘হোম কোয়ারেন্টাইনে’ থাকবেন তাঁরা। আরতেতা নিজেও জানিয়েছেন ভাইরাস সংক্রমণের কথা, ‘ব্যাপারটা বেশ দুঃখজনক। শরীরটা খারাপ লাগছিল, তাই স্বাস্থ্যপরীক্ষা করিয়েছিলাম। সেখানেই ধরা পড়ে। দেখি, ক্লাব যখন আমাকে অনুমতি দেবে, তখন থেকে আবারও কাজ করা শুরু করব।’

আরতেতার খবর শুনে আগামী শনিবার লিগে ব্রাইটনের বিপক্ষে আর্সেনালের ম্যাচ স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে শুধু আরতেতাই নয়, করোনাভাইরাস সংক্রমণের খবর শোনা গেছে লন্ডনের আরেক প্রান্ত থেকেও। চেলসিতে করোনাভাইরাস এসেছে ইংলিশ উইঙ্গার ক্যালাম হাডসন-ওডোইয়ের হাত ধরে। প্রিমিয়ার লিগের খেলোয়াড় হিসেবে হাডসন-ওডোই প্রথম আক্রান্ত হয়েছিলেন করোনায়। খবরটা নিশ্চিত হওয়ার পর নিজেদের অনুশীলন আংশিকভাবে স্থগিত রেখেছে চেলসি। এই কয়েক দিনে হাডসন-ওডোইয়ের সংস্পর্শে যারা এসেছিলেন তাঁদের সবাইকে হোম কোয়ারেন্টাইনে আলাদা করে রাখা হবে বলে জানিয়েছে চেলসি। এদের মধ্যে রয়েছেন ক্লাবের খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফ ও অন্যান্য কর্মকর্তা।

এই খবরের পর চেলসির সঙ্গে অ্যাস্টন ভিলার ম্যাচটাও স্থগিত হতে পারে বলে খবর। লেস্টার সিটির কোচ ব্রেন্ডান রজার্স জানিয়েছেন, তাঁর দলের তিনজন খেলোয়াড়ের মধ্যে করোনাভাইরাসের লক্ষণ প্রকাশ পেয়েছে। প্রিমিয়ার লিগ স্থগিত করার আহ্বান জানিয়েছেন এই কোচ, ‘আমরা যাদের সঙ্গে খেলতে যাব, তারা কি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কি না সেটা কিন্তু আমরা জানি না। ধরুন থ্রো-ইন করতে গিয়ে ভাইরাস সংক্রমিত হলো, তখন? জনগণের স্বাস্থ্য নিয়ে হেলাফেলা করা উচিত না।’ এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এই শঙ্কায় নিজেকে আলাদা করে রেখেছেন ম্যানচেস্টার সিটির ফরাসি লেফটব্যাক বেঞ্জামিন মেন্দি।

নিজের স্বদেশি মিকেল আরতেতার আক্রান্ত হওয়ার খবর শুনেই কি না, মন খারাপ করে টুইট করেছেন আর্সেনালের সাবেক স্প্যানিশ তারকা সেস ফ্যাব্রিগাস, ‘কিসের জন্য অপেক্ষা করছেন আপনারা? স্কুল কলেজ বন্ধ করে দিচ্ছেন না কেন? বন্ধ যেহেতু করতেই হবে তাহলে সেই বন্ধটা আগে করলে সমস্যা কোথায়? আসুন আমরা সবাই দায়িত্বশীল হই।’

ইতালিয়ান সিরি আ, স্প্যানিশ লা লিগা স্থগিত হলেও প্রিমিয়ার লিগে এখনো খেলা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত আসেনি। বাকি সব দেশ যখন নিজেদের গুটিয়ে নিচ্ছে এমন সময় ইংল্যান্ডে তাই ফুটবল চলছে আগের মতোই। ফলে সমালোচনাও ধেয়ে আসছে চারপাশ থেকে। সবার দৃষ্টি তাই আজ অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সভার ওপর। লিগ স্থগিত হবে কি না, জানা যাবে এখান থেকেই। গুঞ্জন, লিগ স্থগিত হওয়ারই সম্ভাবনা বেশি।

গুঞ্জনটা সত্যি হলে ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো, লিওনেল মেসিদের পর মহম্মদ সালাহদের খেলা দেখাও বন্ধ থাকবে কয়েক সপ্তাহ। কারণ, করোনা যে কাউকেই করুণা করছে না!

You might also like
Leave a Comment