সব খবর সবার আগে।

সেমিফাইনালে পাকিস্তানের হারে উচ্ছ্বসিত ভারতীয়রা, পুড়ল বাজি, সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ট্রোলড পাকিস্তান

শত্রুর শত্রু আমাদের বন্ধু। এই কথাটা গতকাল ফের একবার প্রমাণিত হল। টি-২০ বিশ্বকাপ সেমিফাইনালেন পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়া মুখোমুখি হওয়ার পর ভারতীয়দের মনেও এই কথাটাই ঘুরপাক খাচ্ছিল। তাই তো পাকিস্তানের হারের সঙ্গে সঙ্গেই ভারত জুড়ে শুরু হল সেলিব্রেশনের বন্যা।

আসলে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে ভারতের হারের ঘা এখনও দগদগে ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকদের মনে। বিশ্বকাপের মঞ্চে ভারত পাকিস্তানের কাছে হেরে যাবে, এটা সত্যিই হজম করা কঠিন। আর সেই কারণেই গতকালের ম্যাচে ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকদের বেশিরভাগই পাকিস্তানের হারের কামনা করেছে।

আর সেই কামনা সত্যি হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার জিতের সঙ্গে। এমনকি, এদিন পাকিস্তান হারতেই ভারতের নানান জায়গায় শুরু হল বাজি পোড়ানো। পরিবেশ দূষণকে তোয়াক্কা না করেই ফাটল শব্দবাজিও।

সোশ্যাল মিডিয়াতেও পাকিস্তানকে চলল ব্যাপক ট্রোল। কেউ লিখলেন, “পাকিস্তান আছে পাকিস্তানেই”। তো কেউ আবার লিখলেন, “১৪১ কোটি ভারতবাসীর সমর্থন ছিল অজিদের পিছনে”। কোনও কোনও ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থক আবার অস্ট্রেলিয়ার প্রশংসায় পঞ্চমুখ। তাঁদের বক্তব্য, “অনেক দিন বাদে পুরনো অস্ট্রেলিয়াকে দেখা গেল। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চাপালে অজিদের অন্য রূপ ধরা পড়ে”।

শুধু কী সাধারণ জনতা, ভারতীয় রাজনীতিবিদদের কেউ কেউওা আবার পাকিস্তানের এই হারে বেশ উচ্ছ্বসিত। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীও এদিন টুইট করে ভারতের শত্রু পাকিস্তানকে হারানোর জন্য অজিদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। টুইটে তিনি লেখেন, “পাকিস্তানকে হারানোর জন্য অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট দলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা। আমার নন্দীগ্রাম বিধানসভার মানুষও গোটা দেশের পাশাপাশি পাকিস্তানের এই হার উদযাপন করছে। আজ বাজি পোড়ানো বন্ধ হবে না। আমাদের শত্রুদের হারানোর জন্য ধন্যবাদ”।

এমনকি, তৃণমূল যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্যও আবার নিজের বাজি পোড়ানোর ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন।

You might also like
Comments
Loading...