খেলা

মাতৃবিয়োগের পরও নিজের কর্তব্যে অনড়! দুর্ঘটনায় আহত ঋষভ পন্থের মা-কে ফোন মোদীর, নিলেন ক্রিকেটারের স্বাস্থ্যের খোঁজখবর

সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের উইকেটকিপার তথা ব্যাটার ঋষভ পন্থ। তাঁর দ্রুত আরোগ্যের কামনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পন্থের মা-কে ফোন করে তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেন প্রধানমন্ত্রী। মাতৃবিয়োগের পরও নিজের সমস্ত কর্তব্যে অবিচল মোদী।

গতকাল, শুক্রবার ভোররাতে দিল্লি-দেরাদুন হাইওয়েতে একটি ডিভাইডারে আঘাত করার পর ঋষভ পন্থের বিলাসবহুল গাড়িটি উল্টে যায়। স্থানীয়রা গাড়ির কাঁচ ভেঙে গাড়ি থেকে বের করেন ঋষভ পন্থকে। অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছিলেন তিনি। পরে গাড়িটিতে আগুন ধরে যায়। ২৫ বছর বয়সী পন্থের মাথায়, পিঠে এবং পায়ে আঘাত লেগেছে। তবে আপাতত তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল। তাঁর মুখের প্লাস্টিক সার্জারি হয়েছে।

এই ঘটনার পর পন্থের মা-কে ফোন করে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পন্থের শারীরিক অবস্থার খবরাখবর নেন তিনি। এর আগে পন্থের দুর্ঘটনার কারণে তাঁর সুস্থতার কামনা করে একটি টুইট করেছিলেন মোদী। টুইটে তিনি লেখেন, “তারকা ক্রিকেটার ঋষভ পন্থের ঘটনায় আমি মর্মাহত। তার সুস্বাস্থ্য ও মঙ্গল কামনা করছি”।

প্রধানমন্ত্রীর এই টুইট ক্রমশ ভাইরাল হয়। তাঁর টুইটেই মন্তব্য করে ক্রিকেটপ্রেমীরা পন্থের সুস্থতার কামনা করেন। উল্লেখযোগ্যভাবে, গতকাল, শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মা প্রয়াত হয়েছেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও নিজের কর্তব্য থেকে সরে আসেন নি তিনি। এদিন কলকাতায় নিজের সমস্ত কর্মসূচি পালন করেছেন মোদী। ভার্চুয়াল মাধ্যমেই উদ্বোধন করেছেন একাধিক প্রকল্পের। এরই মাঝে ঋষভ পন্থের মা-কে ফোন করে তাঁর স্বাস্থ্যের খবর নিতেও ভোলেন নি তিনি।

এই বিষয়ে বিসিসিআই-এর তরফ থেকে একটি টুইট করে বলা হয়েছে, “ভারতের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীজি ঋষভ পন্তের পরিবারকে ফোন করেছেন এবং আজ সকালে তার গাড়ি দুর্ঘটনার পরে তার স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নিয়েছেন। তাঁর এই ব্যবহারে এবং তাঁর প্রশান্তিদায়ক আশ্বাসের জন্য আমরা প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই”।

Related Articles

Back to top button