খেলা

তাস খেলে এশিয়ান গেমসে স্বর্ণপদক জেতার পর অর্জুনের জন্য মনোনীত হলেন দুই বাঙালী, শিবনাথ ও প্রণব

কথায় আছে ‘তাস, দাবা, পাশা- এই তিনই সর্বনাশা’। এবার এই সর্বনাশা তাস খেলেই অর্জুন পুরস্কারের জন্য মনোনীত হলেন দুই বাঙালী। শিবনাথ দে সরকার ও প্রণব বর্ধনের নাম অর্জুন পুরস্কারের জন্য পাঠিয়েছেন ব্রিজ ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া।

এর আগে এশিয়ান গেমসেও সোনার পদক জিতে চারিদিকে শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন এই দুই বঙ্গ সন্তান। শালকিয়ার শিবনাথ এবং যাদবপুরের প্রণববাবুর বক্তব্য, দেশের মানুষ এখন যে পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন তাতে এই ধরণের খবর তাদের মনকে কিছুটা ভালো করে দেবে। এক বেসরকারী সংবাদমাধ্যমে শিবনাথবাবু জানিয়েছেন, “ সারা দেশের মানুষ এখন করোনার আবহে বিধ্বস্ত হয়ে দিন কাটাচ্ছেন। তার মধ্যে অন্ততপক্ষে ব্রিজ মানুষকে একটু খুশি দিতে পারে। আর এটা কম বড় কথা নয়।”

এর আগে রাজ্যে মোট ২৭০০ জন রেজিস্টার্ড ব্রিজ খেলোয়াড় ছিলেন। কিন্তু এই দুই বঙ্গ সন্তানের এশিয়ান গেমসে পদক জেতার পর সেই খেলোয়াড়ের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৬,০০০। তার উপর যদি অর্জুন সম্মানও হাতে চলে আসে তবে তো সোনায় সোহাগা। কারণ এর আগে তাসের জন্য দেশের মধ্যে এই সম্মান কেউ পাননি। এঁরাই প্রথম ব্রিজ খেলে অর্জুন সম্মান পাবেন।

ফেডারেশনের তরফে জানানো হয়েছে, “নমিনেশন পেপারে যা পাঠানোর আমরা ইতিমধ্যেই পাঠিয়ে দিয়েছি। এরপর যা হওয়ার হবে। তবে ওনারা জিতে গেলে একটা নজিরবিহীন ব্যাপার হবে। যতই হোক দেশে প্রথম ব্রিজ খেলে কেউ অর্জুন পাবে।”

শিবনাথবাবুর কথায়, “এর আগে অনেকেই তাস খেলাকে সর্বনাশা বলত। এখন আর কেউ বলতে পারবে না। প্রায় ১৫জন ছেলে ইতিমধ্যেই বেনজির পারফরম্যান্স দেখিয়ে সরকারি চাকরি পেয়েছে। সুতরাং ভাল পারফরম্যান্স শুধু নাম, খ্যাতি আনে না, বরং আর্থিক দিক থেকেও লাভ দেয়। যার জন্য ব্রিজ খেলাকে এখন অনেকেই পেশা হিসাবে ভাবতে শুরু করেছে।”

Related Articles

Back to top button