রাজ্য

পুরোনো সম্পর্কের জল্পনা উস্কিয়ে অশোক ভট্টাচার্যের বাড়িতে হাজির বাইচুং! পাহাড়ি রাজনীতিতে গুঞ্জন তুঙ্গে

সামনেই বিধানসভা ভোট। বাংলার রাজনীতির  ভবিষ্যৎ নিয়ে উত্তাল হওয়ার মুখে দেশ।
নেতাদের দলবদল ও রংবদলের রাজনীতিতে জেরবার বঙ্গীয় রাজনীতি। এই পরিস্থিতিতে এবার নতুন রাজনৈতিক সমীকরণের ছোঁয়া লাগতে পারে কি? গুঞ্জন উঠছে পাহাড়ি রাজনীতিতে।
আর এর পিছনে কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে, প্রাক্তন ভারতীয় ফুটবলের বাইচুং ভুটিয়ার হঠাৎই শিলিগুড়ি পুরনিগমের প্রাক্তন মেয়র তথা বর্তমান প্রশাসক অশোক ভট্টাচার্যের বাড়িতে হাজির হওয়া।
সদ্যই বিজেপির হাত ছেড়ে তৃণমূলের হাত ধরেছে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা মাথায় নিয়ে ঘুরে বেড়ানো বিমল গুরুং। অন্যদিকে আবার শাসক দল তৃণমূলের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়ে কোচবিহারের বিধায়ক মিহির গোস্বামী এখন বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন।
এসবের মাঝেই বাইচুং-অশোকের বৈঠক ভাবাচ্ছে বঙ্গ রাজনীতিকে। একসময়ের অত্যন্ত বন্ধু এবং পরবর্তীকালে একে অপরের বিপক্ষ হিসেবে উঠে আসা এই দুই ব্যক্তিত্বের কি কথা হলো বৈঠকে?
বর্ষীয়ান সিপিএম নেতা অশোক ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, এই দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে সিকিম আর বাংলার ফুটবল এবং রাজনীতি নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। শিলিগুড়ি ফুটবল অ্যাকাডেমিতে সহযোগিতা করতে আগ্রহ প্রকাশ করেন ভারতীয় ফুটবল দলের প্রাক্তন অধিনায়ক বাইচুং ভুটিয়াও।
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচনে ভারতীয় রাজনীতিতে পা রাখেন দেশীয় ফুটবলের আইকন বাইচুং ভুটিয়া। পাহাড়ের ভোট পকেটে ভরতে পাহাড়ি বিছেকেই প্রচারের মুখ করেছিল শাসক দল। কিন্তু ২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচনে দার্জিলিং কেন্দ্রে বিজেপি’‌র এসএস আলুওয়ালিয়ার কাছে বিপুল ভোটে পরাজিত হন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী বাইচুং ভুটিয়া। ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনেও একই ফল দেখা যায়। ২০১৬ সালে বিধানসভা নির্বাচনে শিলিগুড়ি কেন্দ্রে বামফ্রন্ট প্রার্থী অশোক ভট্টাচার্যের কাছে ভোটে হারেন তৃণমূল প্রার্থী বাইচুং ভুটিয়া। আর তৃণমূলের সঙ্গে সম্পর্ক তলানিতে ঠেকার পর ২০১৮ সালের ২৬শে ফেব্রুয়ারি তৃণমূল কংগ্রেস ছাড়েন বাইচুং ভুটিয়া।
কিন্তু হঠাৎই সিপিএম নেতার বাড়িতে বাইচুং ভুটিয়ার এই হঠাৎ আগমন বেশ গুঞ্জন সৃষ্টি করেছে। তবে পাহাড়ি রাজনীতিতে সমীকরণ বদলাতে পারবে কিনা এই বৈঠক তা সময়ই জানাবে।

Related Articles

Back to top button