সব খবর সবার আগে।

‘বাড়ি থেকে বের করে দেবে তো’, স্ত্রী ডোনার ভয়ে কোন কাজটি একেবারেই করেন না সৌরভ?

বাংলা টেলিভিশনের নানান রিয়্যালিটি শো-এর মধ্যে ‘দাদাগিরি’ অন্যতম। এই শো-য়ের এত খ্যাতির সবথেকে বড় কারণ হল দাদা অর্থাৎ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের উপস্থাপনা। এই শো-তে খেলার পাশাপাশি নিজের জীবনেরও নানান টুকরো টুকরো মুহূর্ত শেয়ার করেন মহারাজ। এর থেকেই বোঝা যায়, একজন ভালো ক্রিকেটার বা উপস্থাপকের পাশাপাশি সৌরভের সেন্স অফ হিউমারও কিন্তু প্রশংসনীয়।

সম্প্রতি ‘দাদাগিরি’র একটি স্পেশ্যাল পর্বে হাজির ছিলেন ‘কাদম্বিনী’ ওরফে ঊষসী রায়। এর আগে সৌরভ একবার ‘বকুল কথা’র শ্যুটে অতিথি অভিনেতা হিসেবে হাজির ছিলেন। সেখানেই ঊষসীর প্রথম দেখা দাদাকে।

ঊষসীর কথায় তো, “স্বপ্ন পূরণ হওয়া, তোমার সাথে স্ত্রিন শেয়ার করার সুযোগ”। এই পর্বে নিজের পড়াশোনা, পরিবারের কথা সৌরভের সঙ্গে ভাগ করে নেওয়ার পাশাপাশি দাদাগিরিতে সৌরভের সাথে র‌্যাপিড ফায়ার খেলতে দেখা যায় ঊষসীকে। সৌরভকে তাঁর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে একগুচ্ছ প্রশ্ন করেন অভিনেত্রী!

ব্যক্তিগত মানে নানান মজার প্রশ্ন। এই যেমন দাঁত মাজার পেস্ট ফুরিয়ে গেলে কী করেন, চায়ে বিস্কুট চুবিয়ে খেতে ভালোবাসেন কি না, রিমোটের ব্যাটারি শেষ হলে তা বাড়ি মেরে আবারও ব্যবহার করেন কি না-র মতো একাধিক প্রশ্ন। তবে, বিছানায় তোয়ালে রাখেন কি না জানতে চাওয়া হলে সৌরভের অকপটে উত্তর দেন, “না কখনোই রাখি না। বাড়ি থেকে বের করে দেবে তাহলে”।

মুখে স্ত্রী ডোনা গঙ্গোপাধ্যায়ের নাম না নিলেও, আকারে-ইঙ্গিতে যে বউয়ের ভয়ের কথাই দাদা বলতে চেয়েছেন, তা আর কারোর বুঝতে বাকি ছিল না। সৌরভের মুখে এই উত্তর শুনে সকলে তো হেসেই খুন।

উল্লেখ্য, আপাতত কোনও ধারাবাহিকে দেখা যাচ্ছে না ঊষসী রায়কে। তবে তিনি ওয়েব সিরিজে কাজ করছেন। সম্প্রতি, হইচই-তে ব্যোমকেশের সপ্তম সিজন অর্থাৎ ‘চোরাবালি’-তে দেখা গিয়েছে তাঁকে। এছাড়াও আরও অন্যান্য ওয়েব সিরিজ করার কথা রয়েছে ঊষসীর।

You might also like
Comments
Loading...